Sunday, December 30, 2012

কে নারী?

লালসা ভরা যে হাথ বুক ছুয়ে গেল,
ওকে ভুলতে লাগেনি সময় |
এর পর জামা যেন আরও ঢিলে পরা হয়,
সেদিকে মন দেওয়া হয়!
এই শেখে ছোটবেলা মেয়েরা সবাই,
রাতে একা হাঁটা চলবেনা লেক-এ,
সুনসান গলি বাদ দিয়ে যেও,
ওতে শয়তান সব বোম্বেটে |
ছেলে যারা বন্ধু, যতই বন্ধু হোক,
এমনিতে নেই কিছু ভয়;
দঙ্গলে মদ খেলে, সরে থাকা ভালো,
কি জানি কখন কি হয় |
কলেজে পড়তে এসে প্রাপ্তি গালাগাল,
আড়াল আবডাল থেকে!
কান পাতা যাচ্ছে না এমনি ভাষার মধু,
দিচ্ছেন শিক্ষিত ভদ্রলোকে!
বাস-এ সিট ছেড়ে দিয়ে উঠে দাঁড়ালো,
লাল চোখ মাস্তান ষন্ডা;
সামনে বসেই বুক দুরুদুরু শুরু,
তার সুনজর যেন আনাকন্ডা !
স্বামী কে প্রনাম করো, ভাই কে ফোঁটা দাও, রাখি দাও
ওরা তোমার রক্ষা করেঙ্গা!
অবলা হওয়াতে লজ্জা কেন মা?
এ তোমার সু-কৃষ্টি দত্ত সংজ্ঞা!

নারীত্ব কে ঢেকে, লুকিয়ে, মেপে,
চলতে শেখায়ে যে সমাজ,
আমানাত নষ্টে, কত তার বিক্ষোভ!
কত তার কান্নার আওয়াজ!
জেনেশুনে কানা, কালা, বোবা হয়ে সটকেছ
অন্য নানা চিন্তায়ে হন্যে!
আজ যেটা হয়ে গেছে, দেয়ালে লেখাই ছিল,
সব্বাই দায়ী এর জন্যে |
শেখাওনি রুখে দাঁড়াতে মেয়েদের,
শিখিয়েছ লজ্জা সেরা তার;
অপূর্ণ রেখেছ তার নারী সত্তাকে,
দুর্ভাগ্য, নারী-পুরুষ দুজনার!
যে মেলামেশা সুন্দর, স্বাভাবিক, প্রাঞ্জল,
তাকে থুতু দিয়ে বানিয়েছ ধিক;
চাপা আগুন এখন ফেটে তো বেরুবেই |
এত সহজে হবেনা সে ঠিক!
পাশাপাশি পুরুষ কে হাঁটতে দিলে,
তবে তো সে চিনবে কে নারী!
কাঁচের পুতুল মান্যি পায় কি?
কি নিয়মের ছিড়ি বলিহারি!

Followers