Friday, December 28, 2012

দিশা

জঙ্গলে হয় নানান রকম, ছোট-বড়, সোজা-ব্যাঁকা,
এত কিছুর ভীরে মশাই, যায় কি সঠিক হিসেব রাখা!?
কোনটা কখন ফুটে ওঠে; কোনটার দিন ঘনিয়ে এল..
অলখ্যে কোন পাতার 'পরে, কিসের ছোঁয়া চমক দিল!
যায়না বলা, যুক্তি বৃথাই খোঁজা..
কঠিন ভারী, ঝকমারি, জংলি নিয়ম বোঝা !

মনের ভেতর জঙ্গল-ই তো! পাশাপাশি ভাবনা নানান,
কোনোটা কালো, কোনোটা ভালো, কোনোটা ট্রয়-এর ঘোরার সমান!
সে ঠিক আছে, বেঠিক কেন, সব হিসেব কি মেলানো যায়?
এ অঙ্ক যে বিশেষ জটিল, দু আর দু-এ পাঁচ-ও হয়!

অনেক নজির; যেমন ধর এক সেতারে নানান সুর-ই,
বাজছে দিব্যি! আমার বেলায় চাইছ কেন এক লহরী?
সেতার যেমন, যেমন বাজাও তেমনি বাজে;
আমার গানও, তোমার সুরে সুরেই সাজে|
তবু সাবধান! যদি জড়াও আমার হৃদয় কোমল রসে,
ভেবনা তেমনি পাবে; পেতেও পারো ফেরত ঝাঁঝাল বুকনি রোষে!
কারণ মনের ফলগু নদী; ভিতর দিকে অন্য স্রোতে..
বইছে জীবন; আজকের আপন, কাল পারেই বদলে যেতে!

ভালো লাগার নিয়ম কিছু থাকে কিনা ঠিক জানিনা..
যখন তখন মনের 'পরে খেয়াল চড়ে নানান কিনা!
আমার মনের অদ্ভুতুরে ভালো লাগাযে অবাক হলাম!
দুই উল্টো রকম মানুষ দেখি লাগছে ভালো সমান সমান |
উল্টো রকম দর্শন দুদিক দিয়ে আমায়ে টানে,
কোনটা কখন আঁকড়ে ধরি, নিজেই কি ছাই বুঝি মানে!

কালের হাওয়া ভাঙছে গড়ছে মনটা আমার ইচ্ছে মতন,
একই কথায় পাচ্ছে কখনো হাঁসি কখনো চাপছি রোদন|

এই রং বদলান পৃথিবীতে এক সত্যিই মানব বরং,
তুমি আমার সত্যি হয়ো, তোমাকে মেনে কাটুক জীবন|
কথা ফুরয়ে যেখানটাতে, সেইখানেতে তুমি থেকো |
আহত বুকে চলার পথে আমায়ে তুমি সামলে রেখো |
বিষন্ন সন্ধ্যে গুলয়ে তোমার চোখের আলো দিও..
রাতের শীতে কাঁপন বেলা আমায় তুমি সঙ্গে নিও |
চুঁয়ে পরা বৃষ্টি ধারার সেই মাটির বুকে যেমন গতি..
আমার পাগলছন্ন মনকে দিও তোমার পরশ মধুর খুঁটি|

Followers