Monday, December 31, 2012

Warhol's Self Portrait at the SF MOMA

Recently I visited the San Francisco Museum of Modern Art. The decision to do so was taken on a whim, primarily out of curiosity. I have no experience or knowledge in this domain. I felt attracted by the way this sort of art seems to speak differently to different people; how the art becomes your own story, open for adaptation to the nuances of your personality.

You can hang abstract art in multiple orientations and derive a fresh meaning for that configuration unique to yourself. That concept felt both new and exciting. Often at the MOMA, I would look at a picture for long, make up my mind on what I think of it and then approach the little notes describing the picture, with its history, intent of the artist and other details. I was almost always different (if not wrong) from what these notes said. To me, that was fine. They were irrelevant to what I appreciated about the picture.

Anyways, this particular piece by Warhol, is not really abstract. And yet, the composition invites you to speculate what he is trying to say. I found the half darkened side to this face very very interesting. To me, it said that the artist is very aware that he is not fully aware of a part of himself. Or a part of himself is not available for public consumption. And yet he tries to create a self portrait. I read that he often invited other people to draw him. Hmmm. I wonder how far our self-image is influenced by how other people think of us. Or, indeed, how we imagine they think of us? And what of the patchiness on the left?

Of course, soon, I was just too muddled up and the art work too abstract for my untrained palate. Me and my partner in "artventure", giggled embarrassingly at how completely absurd some of the material appeared to us!

Sunday, December 30, 2012

কে নারী?

লালসা ভরা যে হাথ বুক ছুয়ে গেল,
ওকে ভুলতে লাগেনি সময় |
এর পর জামা যেন আরও ঢিলে পরা হয়,
সেদিকে মন দেওয়া হয়!
এই শেখে ছোটবেলা মেয়েরা সবাই,
রাতে একা হাঁটা চলবেনা লেক-এ,
সুনসান গলি বাদ দিয়ে যেও,
ওতে শয়তান সব বোম্বেটে |
ছেলে যারা বন্ধু, যতই বন্ধু হোক,
এমনিতে নেই কিছু ভয়;
দঙ্গলে মদ খেলে, সরে থাকা ভালো,
কি জানি কখন কি হয় |
কলেজে পড়তে এসে প্রাপ্তি গালাগাল,
আড়াল আবডাল থেকে!
কান পাতা যাচ্ছে না এমনি ভাষার মধু,
দিচ্ছেন শিক্ষিত ভদ্রলোকে!
বাস-এ সিট ছেড়ে দিয়ে উঠে দাঁড়ালো,
লাল চোখ মাস্তান ষন্ডা;
সামনে বসেই বুক দুরুদুরু শুরু,
তার সুনজর যেন আনাকন্ডা !
স্বামী কে প্রনাম করো, ভাই কে ফোঁটা দাও, রাখি দাও
ওরা তোমার রক্ষা করেঙ্গা!
অবলা হওয়াতে লজ্জা কেন মা?
এ তোমার সু-কৃষ্টি দত্ত সংজ্ঞা!

নারীত্ব কে ঢেকে, লুকিয়ে, মেপে,
চলতে শেখায়ে যে সমাজ,
আমানাত নষ্টে, কত তার বিক্ষোভ!
কত তার কান্নার আওয়াজ!
জেনেশুনে কানা, কালা, বোবা হয়ে সটকেছ
অন্য নানা চিন্তায়ে হন্যে!
আজ যেটা হয়ে গেছে, দেয়ালে লেখাই ছিল,
সব্বাই দায়ী এর জন্যে |
শেখাওনি রুখে দাঁড়াতে মেয়েদের,
শিখিয়েছ লজ্জা সেরা তার;
অপূর্ণ রেখেছ তার নারী সত্তাকে,
দুর্ভাগ্য, নারী-পুরুষ দুজনার!
যে মেলামেশা সুন্দর, স্বাভাবিক, প্রাঞ্জল,
তাকে থুতু দিয়ে বানিয়েছ ধিক;
চাপা আগুন এখন ফেটে তো বেরুবেই |
এত সহজে হবেনা সে ঠিক!
পাশাপাশি পুরুষ কে হাঁটতে দিলে,
তবে তো সে চিনবে কে নারী!
কাঁচের পুতুল মান্যি পায় কি?
কি নিয়মের ছিড়ি বলিহারি!

Friday, December 28, 2012

দিশা

জঙ্গলে হয় নানান রকম, ছোট-বড়, সোজা-ব্যাঁকা,
এত কিছুর ভীরে মশাই, যায় কি সঠিক হিসেব রাখা!?
কোনটা কখন ফুটে ওঠে; কোনটার দিন ঘনিয়ে এল..
অলখ্যে কোন পাতার 'পরে, কিসের ছোঁয়া চমক দিল!
যায়না বলা, যুক্তি বৃথাই খোঁজা..
কঠিন ভারী, ঝকমারি, জংলি নিয়ম বোঝা !

মনের ভেতর জঙ্গল-ই তো! পাশাপাশি ভাবনা নানান,
কোনোটা কালো, কোনোটা ভালো, কোনোটা ট্রয়-এর ঘোরার সমান!
সে ঠিক আছে, বেঠিক কেন, সব হিসেব কি মেলানো যায়?
এ অঙ্ক যে বিশেষ জটিল, দু আর দু-এ পাঁচ-ও হয়!

অনেক নজির; যেমন ধর এক সেতারে নানান সুর-ই,
বাজছে দিব্যি! আমার বেলায় চাইছ কেন এক লহরী?
সেতার যেমন, যেমন বাজাও তেমনি বাজে;
আমার গানও, তোমার সুরে সুরেই সাজে|
তবু সাবধান! যদি জড়াও আমার হৃদয় কোমল রসে,
ভেবনা তেমনি পাবে; পেতেও পারো ফেরত ঝাঁঝাল বুকনি রোষে!
কারণ মনের ফলগু নদী; ভিতর দিকে অন্য স্রোতে..
বইছে জীবন; আজকের আপন, কাল পারেই বদলে যেতে!

ভালো লাগার নিয়ম কিছু থাকে কিনা ঠিক জানিনা..
যখন তখন মনের 'পরে খেয়াল চড়ে নানান কিনা!
আমার মনের অদ্ভুতুরে ভালো লাগাযে অবাক হলাম!
দুই উল্টো রকম মানুষ দেখি লাগছে ভালো সমান সমান |
উল্টো রকম দর্শন দুদিক দিয়ে আমায়ে টানে,
কোনটা কখন আঁকড়ে ধরি, নিজেই কি ছাই বুঝি মানে!

কালের হাওয়া ভাঙছে গড়ছে মনটা আমার ইচ্ছে মতন,
একই কথায় পাচ্ছে কখনো হাঁসি কখনো চাপছি রোদন|

এই রং বদলান পৃথিবীতে এক সত্যিই মানব বরং,
তুমি আমার সত্যি হয়ো, তোমাকে মেনে কাটুক জীবন|
কথা ফুরয়ে যেখানটাতে, সেইখানেতে তুমি থেকো |
আহত বুকে চলার পথে আমায়ে তুমি সামলে রেখো |
বিষন্ন সন্ধ্যে গুলয়ে তোমার চোখের আলো দিও..
রাতের শীতে কাঁপন বেলা আমায় তুমি সঙ্গে নিও |
চুঁয়ে পরা বৃষ্টি ধারার সেই মাটির বুকে যেমন গতি..
আমার পাগলছন্ন মনকে দিও তোমার পরশ মধুর খুঁটি|

Tuesday, December 18, 2012

Untimely

His tiny feet wont cross
Her forlorn threshold anymore.
Those innocent eyes wont ask
The endless questions she adored.
That tender voice wont be heard
In her hallways or her bedroom.
Those clothes with the smell of him
Will be stowed away someplace else soon.
His grubby hands wont mess
Her walls and carpets with crayons.
Numbed with unspeakable horror,
She fights for strength to go on.

Midst this heart rending sorrow,
Gun shots hammer away in her ears,
And she struggles with her faith,
With candles and prayers.
But these methods for healing,
Seem pointless, seem absurd;
A moot conversation;
Ignored and unheard.
The punctured body of her baby
Is an image seared on her brain
She still cant believe it
This is a bad dream, she feigns.

I sit and can only wonder
At the mother who has to!
My heart goes out to her...
And what she must do.
What a price has life extracted!
For what conceivable reasons?
Will anything ever be same again?
Whether we change laws or seasons.
How does one start after insanity like this?
What in the world could bring her catharsis?

Friday, December 14, 2012

Infactuation

If he’d only whisper to her
A sweet secret now and then
She’d play it over forever
And live her fairy tale

If he’d only leave her a note or two
Nothings, scribbled on the fly
She’d make legends out of those words
And sail upon her mind's skies

If he’d only touch her softly
A careless brush or twirl
She’d soak in that awareness
Heart a-flutter, toes a-curl!

If he’d only glance her way
And smile when their eyes lock
She’d be his for the asking now
While Cupid’s shining lasts.

Secrets

No one, you said to me, need know.
That was seductive, that was irresistible.
The parasol of comforting anonymity...
Guarding the fire simmering between us
Guarding the sweet nonsense kissed upon my heart
Or spoken silently with a glance
Unmistaken between us,
Incomprehensible to everyone else
You tired, didn’t you?
I looked around for you…
You weren’t there.
Somehow I thought you’d always be…
Seething now, exhausted now, sleeping now.
Time boxed
Regretting life whiled away in trifles and laziness.

Monday, December 10, 2012

Lover, you

You shape the lines of poetry
I write in vain to catch
The ephemeral sweetness
Of life.. that vies to match
the lungful of pipe dreams
my imaginations hatch

Cant fathom this passion you inspire!
And the places in me you touch
I respond with poetry
And hope you'll see as much
Hold my wistful promise fulfilled.
sweet surrender and such

The mystery of you so beautiful
Despite the space that stretch
Between us; For you I reach
Realms beyond to fetch
Fragrant kisses. A timeless note
Upon my heart you etch

%%%%%%%%%%%%
You shape the lines of poetry
I write in vain to catch
The ephemeral sweetness
Of life, that tries to latch
Onto a pocketful of pipe dreams.
And fanciful romances!

Cant fathom this passion you inspire!
And the places in me you touch
I surrender in poetry
And hope you'll see as much
Hold my wistful promise fulfilled.
Thwarting warnings age pronounces.

The mystery of you so beautiful
Despite the space that stretch
Between us; For you I reach
Realms beyond to fetch
A lungful of fragrant kisses.
A mouthful of fresh chances.

As you breathe life into me
Upon my heart you etch
A note of timeless beauty
You fan my eternal lech
For a fistful of synced thoughts
Weaving soulful converses.

Followers