Friday, September 18, 2009

এক ফালি বাগানের কথা

আমার বাগানে শিউলি ফুলের গাছ ছিল
গন্ধরাজের সাথে তার বনত না!
টগর জবা প্রবীণা প্রকৃতি রইত চুপ,
মায়ের পায়ে নিত্যি তাদের অর্চনা.

শীতে, গাঁদা আর দোপাটি বেশ হত,
বৃষ্টি ধোয়া জুই বিকেলে আনমনা.
নিমএর গোড়াতে বারোমাস বসে নায়ান্তারা
শৌখিন লাল গোলাপ গুলোর দিন গোনা.

বুড়ো নারকোল খাড়া দাড়িয়ে রাত্রি দিন
ওর চোখেতে নেইকো ঘুম নেইকো ঝিম.
রাত বাড়লে চাঁদ উঠত ওর পাশে
বুক দুরুদুরু হাওয়ায়ে পাতার খসখসে

নিম গাছ তার হাবভাব বেশ ঢিলে ঢালা
তার থেকে কেউ চাই না ফুল, চায় না ফল.
মিষ্টি হাওয়া আর মাঝে মাঝে নিম বেগুন..
গরম কালে টের পাবে কি নিমের গুন!

আরো ছিল প্যাংলা কাঠি পেয়ারা গাছ
কাশির পেয়ারা, লাল ভেতরটা, মিষ্টি খুব
স্বরস্বতী পুজোর রাতে পাহারা জোর
নচেত পাড়ার ছেলেরা পাকা পেয়ারা চোর

আরো ছিল এক কোনেতে বেল -এর গাছ
শুনতে পেতাম ব্রহ্ম দৈত্যি থাকে ওতে
পুজোর সময়ে ভিসন লাগে বেলপাতা
গরমের দিনে বেল পাকা মাখা দিত খেতে .

পাঁচিল জুড়ে একটি বিশাল কাঁঠাল গাছ
তার ঠেসেতে পাচিল কেবল যায়ে নড়ে
পাশের বাড়ির মালিক কেবল চোখ রাঙায়ে
পাকলে কাঁঠাল শান্ত সবাই ভাগ পেয়ে.

Followers